June 14, 2024, 6:55 pm
শিরোনাম :
পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে পশুর হাটের সার্বিক আইন – শৃঙ্খলা রক্ষার্থে মতবিনিময় সভা সম্পন্ন পিবিআই এর দৃঢ়তায় মানবপাচারকারী এর হাত থেকে ভিকটিম উদ্ধার, আটক -৩: ভিন্ন আঙ্গিকে নবাবগঞ্জ উপজেলা হিন্দু ছাত্র মহাজোট এর শরবত ও স্যালাইন বিতরণ কর্মসূচি এলজিইডি এর মূল্যায়নে শ্রেষ্ঠ ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন এম এ বারী বাবুল মোল্লা নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের টেঁটাযুদ্ধ আন্তর্জাতিক মা দিবস উপলক্ষে BHDS অপরাধ প্রতিরোধ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে আলোচনা ও গুণীজন সম্মাননা প্রদান নরসিংদীর রায়পুরায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পিটিয়ে হত্যা ব্যবিচারে লিপ্ত থাকায় আবাসিক হোটেল থেকে নারী – পুরুষ গ্রেফতার -২ নবাবগঞ্জের শোল্লায় এক শিশুকে হত্যার অভিযোগে ২ জন গ্রেফতার রুগঞ্জে জালভোট দেওয়ার সময় ২ যুবক আটক:

অভিযোগের উপর আবারোও অভিযোগ পড়লো গোগনগর ইউনিয়ন এর মেম্বার রুবেল এর নামে

বিশেষ প্রতিনিধি

বিশেষ প্রতিনিধি : নারায়গন্জ গোগনগর ইউনিয়নের রুবেল মেম্বারের নামে অভিযোগের যেন শেষ নেই। সাবেক মেম্বার হত্যা সহ, সৈয়দপুরের আব্দুল জলিলের বাড়ি ভাংচুর,ও অগ্নি সংযোগ, ইউনিয়নে ভোগান্তি, এবং প্রধানমন্ত্রীর উপহারে ঘরের টাকা গায়েব সহ নানা অভিযোগ রয়েছে তার নামে। গত ৪ মার্চ( সোমবার) খবর নারায়ণগঞ্জের একটি ভিডিও চিত্রে দেখা মিলে ; মেম্বার রুবেলের এক সহযোগী (শিপন) তারই ইউনিয়নের
দুই জন বাচ্চা মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় এবং তা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন রুবেল মেম্বার।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার গোগনগর ইউনিয়নের সৈয়দপুর এলাকায় মুজিবনগর আশ্রয়ন প্রকল্পে দুই জন বাচ্চা মেয়েকে চকলেটের টাকা দেওয়ার কথা বলে ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ভাবে ধ*র্ষণ করে শিপন।

বর্তমান রুবেল মেম্বার এর সহযোগী হচ্ছে এই নর পিচাশ শিপন।
রুবেল মেম্বারের প্রভাবের কারণে ভুক্তভোগী পরিবার মামলা করতে পারিনি এখন শুধু কান্না আর হাহাকার।
এই বিষয়ে অপরাধ বিচিত্রার সাংবাদিক তার মুঠোফোনে ফোন দিলে– রুবেল মেম্বার খুব শান্ত সুরে বলেন, আমি সাভার রয়েছি, শিপন কে চিনি, তিনি আমার এলাকার জামাই।মেয়ের পরিবারকে বলেছি মামলা করতে, কিন্ত তারা মামলা করবে না তাদের নাকি টাকা নেই।
আপনি একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে কি তাদের কোনো সহযোগিতা করেনি? নাকি বিষয়টা আপনিই দেখছেন? সাংবাদিকের এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আমি মামলা করতে বলেছি তারা করবে না এটা তো আমার দোষ নয়।আমার নামে কিছু চক্র মিথ্যা সংবাদ ছড়াচ্ছে।এবং মেয়ের পরিবার আমার এলাকার কিন্ত শিপন থাকে সিলেটে। এবং তিনি আরো বলেন আমি সংবাদ নিয়ে ভাবি না, আমার নামে শত্রুতা করেই মানুষ লিখে। শিপনের নাম্বার চাইলে সাংবাদিকদের বলে আমি ৬ মাস জেল খেটেছি ২ বছর বিদেশে ছিলাম আমার কাছে নেই, নাম্বারটা একটু খুজে দিতে হবে। কিছুক্ষন পরে একটি বন্ধ নাম্বার দিয়ে বলেন এটাই সিপনের নাম্বার। ফোন বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন — ঘটনার পরের দিনই শিপন সিলেট চলে গেছে। সে তো এখানের স্থানীয় বাসিন্দা নয়,তার বাড়ি সিলেট। এটা বলে সে ফোন কেটে দেয়।যেখানে ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড, সেখানে ধর্ষক কতো শান্তিতে ঘুড়ে বেড়াচ্ছে এবং নিরাপত্তা হিনতায় ভুগছে শিশুদের পরিবার। এই হলো বর্তমান বিচার ব্যবস্থা।

পুলিশের মহাপরিদর্শক এবং নারায়ণগঞ্জের জেলা পুলিশ সুপারের কাছে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষে কামনা করছে এই দুই পরিবার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

Categories