June 24, 2024, 12:38 pm
শিরোনাম :
পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে পশুর হাটের সার্বিক আইন – শৃঙ্খলা রক্ষার্থে মতবিনিময় সভা সম্পন্ন পিবিআই এর দৃঢ়তায় মানবপাচারকারী এর হাত থেকে ভিকটিম উদ্ধার, আটক -৩: ভিন্ন আঙ্গিকে নবাবগঞ্জ উপজেলা হিন্দু ছাত্র মহাজোট এর শরবত ও স্যালাইন বিতরণ কর্মসূচি এলজিইডি এর মূল্যায়নে শ্রেষ্ঠ ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন এম এ বারী বাবুল মোল্লা নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের টেঁটাযুদ্ধ আন্তর্জাতিক মা দিবস উপলক্ষে BHDS অপরাধ প্রতিরোধ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে আলোচনা ও গুণীজন সম্মাননা প্রদান নরসিংদীর রায়পুরায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পিটিয়ে হত্যা ব্যবিচারে লিপ্ত থাকায় আবাসিক হোটেল থেকে নারী – পুরুষ গ্রেফতার -২ নবাবগঞ্জের শোল্লায় এক শিশুকে হত্যার অভিযোগে ২ জন গ্রেফতার রুগঞ্জে জালভোট দেওয়ার সময় ২ যুবক আটক:

নবাবগঞ্জ থানায় নামীদামী ব্রান্ডের ভেজাল ঔষধ বিক্রির চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার ও বিপুল পরিমাণ ভেজাল ঔষধ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি

  1. ঘটনার সংক্ষিপ্ত বিবরণ :- গতকাল ২৭/০৩/২০২৪ ইং তারিখ দুপুর অনুমান ০২.৩০ ঘটিকার সময় নবাবগঞ্জ থানাধীন কলাকোপা ইউনিয়নের কাশিমপুর সাকিনস্থ মুক্তি ক্লিনিক এর নিচ তলা “সৈকত ফার্মেসীর” মালিক মোঃ শাওন এর নিকট ০১নং- আসামী উৎপল সরকার হেলথ কেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানীর সারজেল ঔষধ বিক্রয় করিতে যায়। ঐ সময় দোকানদার ০১নং-আসামী উৎপল সরকার এর নিকট ঔষধের ক্যাশ মেমো চাইলে আসামী ক্যাশ মেমো দিতে অস্বীকৃতি জানায় এবং উক্ত ঔষধ ডিসপ্লেতে সাজানো যাবে না, নিচে রেখে বিক্রয় করিতে হবে বলে জানালে ফার্মেসীর মালিকের সন্দেহজনক মনে হলে নবাবগঞ্জ থানা পুলিশকে অবগত করে। নবাবগঞ্জ থানার একটি টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ০১নং আসামীকে আটক করে ও তাহার নিকট থাকা বিক্রয়ের জন্য আনা ১০ বক্স সার্জেল ২০ মিঃ গ্রাঃ (হেলথ কেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ) ভেজাল ঔষধ গুলি জব্দ করে। পুলিশ কৌশলে ০১নং আসামীর সহযোগী বিক্রয়ের সাথে জড়িত ০২নং আসামী প্রকাশ চন্দ্র মজুমদার’কে কৌশলে গ্রেফতার করে এবং তাহার নিকট হইতে ০৫ বক্স সার্জেল ও ১২ বক্স জিম্যাক্স ৫০০ মিঃ গ্রাঃ (স্কয়ার ফার্মাঃ) ভেজল ঔষধ জব্দ করেন। পরবর্তীতে হেলথ কেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড এর উপ-ব্যবস্থাপক, লিগ্যাল এ্যাফেয়াস মোঃ মোজারুল হক তালুকদার বাদী হয়ে নবাবগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। যাহার মামলা নং-২১, তাং-২৭/০৩/২০২৪ খ্রিঃ ধারা-25C(1) (c) (d) The Special Powers Act, 1974 রুজু হয়।

তদন্ত ও অভিযানের ফলাফল:-

ভেজাল ঔষধ বিক্রয়ের অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি ঢাকা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মো: আসাদুজ্জামান, বিপিএম, পিপিএম (বার) মহোদয়কে অবগত করিলে পুলিশ সুপার মহোদয় ভেজাল ঔষধ বিক্রয়ের চক্রকে গ্রেফতার ও তাদের নিকট থাকা ভেজাল ঔষধ উদ্ধার করার জন্য নিদের্শনা দেন। তৎপ্রেক্ষিতে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার দোহার সার্কেল জনাব মোঃ আশরাফুল আলম এর তত্বাবধানে অফিসার ইনচার্জ নবাবগঞ্জ, থানা জনাব মোহাম্মদ শাহ্ জালাল এর নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব আশফাক রাগীব হাসান, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) শ্যামলেন্দু ঘোষ, এসআই (নিঃ) অজিত কুমার রায় সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ একটি চৌকস টিম ধৃত আসামী ‘দ্বয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামীদ্বয় বেশকিছু চাঞ্চল্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়। ০১নং আসামী উৎপল সরকার’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, নবাবগঞ্জ থানার হরিষকুল গ্রামে তাহার একটি ঔষধের দোকান আছে। তিনি ০২নং আসামী প্রকাশ চন্দ্র মজুমদার এর নিকট হইতে ভেজাল ঔষধ ক্রয় করিয়া নিজ ফার্মেসি ও নবাবগঞ্জ থানার বিভিন্ন ফার্মেসিতে বিক্রয় করিয়া থাকেন। ০২নং আসামী প্রকাশ চন্দ্র মজুমদার’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তিনি কুমুদিনী ফার্মাঃ কোম্পানীর নবাবগঞ্জ থানা বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করিতেন। প্রায় ৫/৬ মাস পূর্বে তাহার চাকরি চলিয়া যায়। তখন তিনি মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর থানা জামসা বাজারে খান ব্রাদার্স এর মালিক ০৩নং আসামী মোঃ নুরুজ্জামান খান এর সহযোগীতায় ঢাকার মিডফোর্ট হাসপাতাল সংলগ্ন ঔষধের মার্কেট হইতে কমদামে ভেজাল ঔষধ কিনিয়া খান ব্রাদার্স ফার্মেসিতে রেখে ও নিজ হেফাজতে রেখে কৌশলে নবাবগঞ্জের বিভিন্ন ফার্মেসিতে বিক্রয় করিতেন। ০২নং আসামী প্রকাশ মজুমদার এর দেওয়া তথ্য মতে মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে জামসা বাজারে খান ব্রাদাস এর মালিক ০৩নং আসামী নুরুজ্জামান খান’কে গ্রেফতার করা হয় এবং তাহার ঔষধের দোকানের সাথে একটি আলাদা ঘরে সু-কৌশলে লুকিয়ে রাখা প্রায় ১ লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন নামীদামি ব্রান্ডের ভেজাল ঔষধ উদ্ধার করা হয়। সেখানে বিভিন্ন ভুয়া ও নিবন্ধন বিহীন কোম্পানীর ঔষধ উদ্ধার ও জব্দ করা হয়। পরবর্তীতে ০২নং আসামী প্রকাশ মজুমদারের বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করে আরো বেশকিছু নামীদামি ব্রান্ডের ভেজাল ঔষধ উদ্ধার ও জব্দ করা হয়। ০৩নং আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে ০২নং আসামী প্রকাশ মজুমদার সহকারে ঢাকা মিডফোর্ট হাসপাতাল সংলগ্ন ঔষধ মার্কেট থেকে কমদামে ভেজাল ঔষধ কিনে নিজ ফার্মেসিতে রেখে স্থানীয় বাজারে এবং ০২নং ও ০১নং আসামীর মাধ্যমে নবাবগঞ্জ থানার বিভিন্ন ফার্মেসিতে বাজারজাত ও বিক্রয় করিয়া থাকেন। উল্লেখিত আসামী’গণ দীর্ঘদিন ধরে অসাধুভাবে ভেজাল ঔষধ বাজারজাত ও বিক্রয় করিয়া আসিতেছে বলিয়া জানাযায়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হইয়াছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের নাম ঠিকানা:-

০১। উৎপল সরকার (৪৭), পিতা-জীবন সরকার, মাতা-জয়মালা সরকার, সাং-হরিষকুল, (ইউপি-যন্ত্রাইল), থানা-নবাবগঞ্জ, জেলা-ঢাকা।

০২। প্রকাশ চন্দ্র মজুমদার (৪৭), পিতা-মৃত মতিলাল মজুমদার, মাতা-মৃত মিনা রানী মজুমদার, সাং-বাসা নং-১২, রাজার দেউরী, থানা-কোতয়ালী, ডিএমপি ঢাকা, এ/পি সাং-শোল্লা, থানা-নবাবগঞ্জ, জেলা-ঢাকা।

০৩। মোঃ নুরুজ্জামান খান (৩৫), পিতা-মৃত আবুল হাশেম খান, মাতা-জবেদা বেগম, সাং-দক্ষিণ জামসা, থানা-সিংগাইর জেলা-মানিকগঞ্জ (খান ব্রাদাস ফার্মেসী এর মালক)।

জব্দকৃত আলামত (ভেজাল ঔষধ) এর বর্ণনা:-
১. সারজেল ২০ মিঃ গ্রাম, হেলথ কেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ, ৮১০০ টি ক্যাপসুল, মূল্য ৫৬,৭০০/- টাকা ।

২. কোরালক্যাল ডি, রেডিয়েন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ, ৯০০ টি ট্যাবলেট, মূল্য ১০,৮০০/- টাকা ।

৩. জিম্যাক্স ৫০০ মিঃ গ্রাম, স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালস লিঃ, ৪৩২ টি ট্যাবলেট, মূল্য ১৭,২৮০/- টাকা ।

8. ফিনিক্স ২০ মিঃ গ্রাম, অপসোনিন ফার্মাসিটিক্যালস লিঃ, ৩৬৪০ টি ট্যাবলেট, মূল্য ১৮,২০০/- টাকা

৫. গ্যানোপ্লেক্স পাউডার, গ্রীন লাইফ ন্যাচারাল হেলথ কেয়ার (আয়ুবেদিক) লিঃ, ১৩ টি কৌটা, মূল্য ৪,৫৫০/- টাকা ।

৬. আনার দানা ট্যাবলেট, বোটানিক ল্যাবরোটারিজ (ইউনানি) লিঃ, ০৮ টি কৌটা, মূল্য ২,৮৮০/- টাকা ।

৭. আনার ট্যাবলেট, বায়ো সাইন্স আয়ুবেদিক লিঃ, ০৯ টি কৌটা, মূল্য ৩,১৫০/- টাকা ।

৮. বি-ট্যাব ট্যাবলেট, বোটানিক ল্যাবরোটারিজ (ইউনানি) লিঃ, ০৭ টি কৌটা, মূল্য ২,৪৫০/- টাকা ।

৯. হেলফিট ট্যাবলেট, বোটানিক ল্যাবরোটারিজ (ইউনানি) লিঃ, ০৯ টি কৌটা, মূল্য ৩,২৪০/- টাকা ।

১০. রুচি ট্যাব, শেড আয়ুবেদিক লিঃ, ০৬ টি কৌটা, মূল্য ২,১০০/- টাকা ।

১১. কৃশতা ফওলাদ ট্যাবলেট, মুসলিম মেডিহেলথ (ইউনানি) লিঃ (রাজশাহী), ২০০ টি ট্যাবলেট, মূল্য ৬,০০০/- টাকা ।

১২. হাবেব নিশাত ট্যাবলেট, পেনাসিয়া ল্যাবরোটারিজ ইন্ডাঃ (ইউনানি) লিঃ, ২০০ টি ট্যাবলেট, মূল্য ৬,০০০/- টাকা ।

১৩. মুকাব্বী ট্যাবলেট, মুসলিম মেডিহেলথ (ইউনানি) লিঃ (রাজশাহী), ২০০ টি ট্যাবলেট, মূল্য ৬,০০০/- টাকা ।

১৪. গুড হেলথ ট্যাবলেট, লিমিড ল্যাবরোটারিজ লিঃ, ০৪ টি কৌটা, মূল্য ১,৪০০/- টাকা ।

১৫. স্যাকোজিমা মলম, কোম্পানীর নাম নাই, ২৯ পিস মলম, মূল্য ১,৩০৫/- টাকা ।

১৬. জিনসিন পি সিরাপ, প্যারেন্টস ল্যাবরোটারিজ লিঃ, ১৯ বোতল সিরাপ, মূল্য ১,৩৩০/- টাকা ।

সর্বমোট=৮১০০ টি ক্যাপসুল, ৫,৫৭২ টি ট্যাবলেট, ৫৬ টি কৌটা, ২৯ পিস মলম ও ১৯ বোতল সিরাপ, মূল্য ১,৪৩,৩৮৫/- টাকা ।

-মো: আশরাফুল আলম,
সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার,
দোহার সার্কেল, ঢাকা


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

Categories